12.6 C
New York
Thursday, May 19, 2022

‘আ’লীগ গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ার মধ্যদিয়ে আওয়ামী লীগ এবং তাদের অধীনস্ত প্রশাসন গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে।

আজ শনিবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে গণধর্ষণের শিকার নারীকে দেখতে যাওয়ার পথে কুমিল্লা বিশ্বরোডের জমজম হোটেলে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এসময় তিনি বলেন, রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মধ্যদিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারও জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়া হলো। এর মাধ্যমে আওয়ামী লীগ ও প্রশাসন সম্পূর্ণভাবে গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে, ভোটের দিন ও পরে সহিংসতার মাধ্যমে গোটা দেশে একটা সহিংস ত্রাস এবং নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হয়েছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আমরা দেখেছি, নোয়াখালীতে আমাদের এক বোন ধর্ষিত হয়েছেন। আমরা এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার নিন্দা জানিয়েছি। সারা দেশে সহিংসতারও নিন্দা জানিয়েছি।

আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা জনগণের কাছে জানাচ্ছি, এই সহিংসতা প্রতিরোধ করার।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, আপনারা যারা দায়িত্বে আছেন, বিশেষ করে নির্বাচন কমিশনের কাছে আমরা বলেছি— এই সহিংসতা সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করতে। তাদের উচিত হবে, এই সহিংসতা বন্ধ করা।

এর আগে আজ শনিবার (৫ জানুয়ারি) সকালে তারা নোয়াখালীর উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। শনিবার সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে বিএনপির গুলশান কার্যালয় থেকে তারা রওনা হয়েছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গাড়ি বহরে আছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। সব মিলিয়ে ২০টির মতো গাড়ি নিয়ে এই প্রতিনিধি দলে যুক্ত হয়েছেন ঐক্যফ্রন্টের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

ধর্ষণের শিকার ওই নারী (৪০) এখন নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঐক্যফ্রন্টের নেতারা সেখানেই যাবেন। নোয়াখালী সফরকালে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ নোয়াখালী জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ে জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতাদের সাথে মতবিনিময় করবেন। এ ছাড়া সাবেক এমপি জয়নুল আবদিন ফারুকের বাসভবনে যাত্রাবিরতি করবেন। এরপর বিকেলে তারা ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন।

প্রসঙ্গত, গত ৩০ ডিসেম্বর সংসদ নির্বাচনের দিন রাতে ওই নারীর স্বামী-সন্তানকে বেঁধে তাকে পিটিয়ে আহত করা হয় এবং ধর্ষণ করা হয়। নির্যাতনের শিকার নারীর পরিবার জানায়, ভোটকেন্দ্রে কথাকাটাকাটির জেরে এই ঘটনা ঘটানো হয়। ডাক্তারি পরীক্ষায় ওই নারীকে ধর্ষণের প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ছয়জনকে গ্রেফতারও করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

উল্লেখ্য, নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা সিরাজ উদ্দিনের স্ত্রী গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নোয়াখালী-৪ আসনের বিএনপির প্রার্থী মো: শাহাজাহানকে ধানের শীষে ভোট দিতে কেন্দ্রে যান। এ সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগের ১৫-১৬ জন তাকে ঘিরে ধরে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার জন্য চাপ দেন। কিন্তু তিনি ধানের শীষ ভোট দেন। এ নিয়ে তাদের সাথে ওই গৃহবধূর কথা কাটাকাটি হয়।

সেদিন রাত ১২টায় সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা রুহুল আমিনের নির্দেশে ১০-১৫ জন সিরাজের বাড়িতে গিয়ে পুলিশ পরিচয় দিয়ে দরজা খুলতে বলেন। সিরাজ দরজা খুলে দিলে মোশারেফ, সালাউদ্দিন, সোহেল, নেঞ্জু, বেচু, জসিম, সোয়েল, কালাম, আবু, স্বপন, আনোয়ার, বাদশা আলম, হানিফ, আমির হোসেনসহ ১৫-১৬ জন ঘরে প্রবেশ করে সিরাজ ও তার ছেলেমেয়েদের হাত-পা বেঁধে ঘরে রেখে তার স্ত্রীকে টেনে-হিঁচড়ে ঘরের বাইরে নিয়ে মারধর ও গণধর্ষণ করে ভোরে চলে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন নির্যাতিত গৃহবধূকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ন্যক্কারজনক এ ঘটনার পর গত বুধবার দুপুরে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ৩ সদস্যের একটি টিম ও বিকেলে পুলিশের চট্টগ্রাম বিভাগের ডিআইজি ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেন।

এ দিকে এ ঘটনার বিচারের দাবিতে নোয়াখালী সচেতন ছাত্রসমাজের ব্যানারে বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা শহর মাইজদী টাউনহল মোড়ে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শতশত শিক্ষার্থী এতে অংশগ্রহণ করে।

Facebook Comments Box

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles